বিপিন রাওয়াত: ভারতে হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হয়ে শীর্ষ জেনারেল নিহত

ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং (বায়ে) এবং জেনারেল বিপিন রাওয়াত

ভারতের তামিলনাড়ুতে একটি হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হয়ে দেশটির চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ বিপিন রাওয়াত নিহত হয়েছেন।

ভারতীয় বিমানবাহিনী এক বার্তায় জানিয়েছে, হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় জেনারেল রাওয়াত, তার স্ত্রী এবং আরো ১১ জন আরোহী নিহত হয়েছেন।এম আই ১৭ হেলিকপ্টারটিতে মোট ১৪ জন আরোহী ছিলেন । তাদের একজনকে জীবিত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে বলে সংবাদসংস্থা পিটিআই জানিয়েছে, এবং তাকে হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং এ ঘটনায় শোক প্রকাশ করেছেন। হেলিকপ্টারে আরোহীদের মধ্যে কয়েকজন জ্যেষ্ঠ সামরিক কর্মকর্তা ছিলেন বলে জানা যাচ্ছে।

প্রথমবারের মতো ভারতে চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ পদ তৈরি করে বিপিন রাওয়াতকে নিয়োগ দেয়া হয়।

মি. রাওয়াত সুলুর বিমানঘাঁটি থেকে নীলগিরি পর্বতের ওয়েলিংটনে ডিফেন্স সার্ভিসেস কলেজের একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে যাচ্ছিলেন। যাবার পথে শৈল শহর ঊটির কাছে কুন্নুরে দুর্ঘটনাটি ঘটে।

দুর্ঘটনার কারণ কী?
প্রত্যক্ষদর্শীদের উদ্ধৃত করে ভারতের কয়েকটি সংবাদমাধ্যম জানাচ্ছে, হেলিকপ্টারটি অবতরণ করার করার কিছুক্ষণ আগে এ দুর্ঘটনা ঘটে – এবং আগুন ধরে যাওয়ার আগে সেটি একটি গাছে ধাক্কা মারে। একজন প্রত্যক্ষদর্শী বলেন, তিনি হেলিকপ্টারটি আকাশ থেকে পড়ার সময় কয়েকটি জোরালো শব্দ শুনতে পেয়েছেন। বিবিসি বাংলার সংবাদদাতা অমিতাভ ভট্টশালী জানাচ্ছেন, এই হেলিকপ্টার দুর্ঘটনার কারণ খতিয়ে দেখতে বিমানবাহিনী এক তদন্ত শুরু করেছে। তবে তার বিস্তারিত তথ্য আসতে সময় লাগবে।

বিপিন রাওয়াতকে বহনকারী হেলিকপ্টারের ধ্বংসাবশেষ

ওই অঞ্চলে যারা বিমানবাহিনীর হেলিকপ্টার চালিয়েছেন, এরকম বিশ্লেষকরা বলছেন পাহাড়ী ওই এলাকায় বিমান নিয়ন্ত্রণ করা বেশ কঠিন। তবে সামরিক বাহিনীর সর্বোচ্চ অফিসার যে হেলিকপ্টারে ভ্রমণ করছেন, তার পাইলটের অতি দক্ষ হবারই কথা। এ ঘটনার বিস্তারিত কারণ জানতে আরও কিছুদিন অপেক্ষা করতে হবে বলেই মনে করা হচ্ছে। রাশিয়ায় তৈরি এমআই ওয়ান সেভেন ভি ফাইভ হেলিকপ্টারটি সবচেয়ে আধুনিক সামরিক পরিবহন হেলিকপ্টারের অন্যতম – তবে ভারতের বিমান বাহিনীর যানগুলো পুরোনো হয়ে যাবার কারণে একাধিক দুর্ঘটনা ঘটেছে। অরুণাচল প্রদেশে ২০১৭ সালে একটি সামরিক হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হয়ে ৭ জন সামরিক বাহিনীর লোক নিহত হন। এর আগের বছর উত্তরাখণ্ড রাজ্যে আরেকটি হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হয় তবে তাতে কোন প্রাণহানি হয়নি। সাবেক সেনা প্রধান জে জে সিং অবশ্য বলেছেন যে মি. রাওয়াতকে বহনকারী হেলিকপ্টারটি যে নিরাপদ ছিল তা প্রমাণিত।

ভারতের প্রথম চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ
মি. রাওয়াত সেনাপ্রধানের পদ থেকে অবসর গ্রহণের পর ২০২০ সালের পহেলা জানুয়ারি চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ পদের দায়িত্ব গ্রহণ করেন।প্রথমবারের মতো ভারতে এ পদ তৈরি করে বিপিন রাওয়াতকে নিয়োগ দেয়া হয়। তিনি ভারতের সেনাবাহিনীর আধুনিকায়নের দিকে মনোনিবেশ করেছিলেন।

জেনারেল রাওয়াত সেনাবাহিনীতে প্রায় ৪ দশক কাজ করেছেন এবং তিনি ছিলেন একজন ‘ফোর স্টার’ জেনারেল। তিনি গোড়ায় গোর্খা রাইফেলসে কমিশনড অফিসার হিসাবে যোগ দেন., এর পর কাশ্মীর থেকে শুরু করে উত্তর-পূর্বাঞ্চল, দক্ষিণ ভারত – সব এলাকাতেই কাজ করেছেন মি. রাওয়াত। সেনা প্রধান হিসেবে মেয়াদ শেষ হওয়ার ঠিক আগেই ভারত সরকার বিপিন রাওয়াতকে চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ হিসাবে নিয়োগ করে। তার কাজ মূলত ছিল সেনা-বিমান আর নৌবাহিনীর মধ্যে সমন্বয় স্থাপন – তিন বাহিনীর প্রধানদের সঙ্গে যৌথভাবে বাহিনীগুলির সর্বাধিনায়ক রাষ্ট্রপতি ও সরকারকে পরামর্শ দেয়া। তবে জেনারেল রাওয়াতকে নিয়ে বিতর্কও কম হয় নি। বিশেষ করে বিভিন্ন বিষয়ে তিনি নানা সময়ে এমন মন্তব্য করেছেন, যা কোনও সামরিক অফিসারের মুখে আগে শোনা যায় নি। তার কয়েকটি মন্তব্যে রাজনৈতিক চিন্তাধারাও প্রকাশ পেত, যেটা ভারতের সামরিক অফিসারদের চাকরীতে থাকাকালীন কখনো করতে দেখা যায় না।

সূত্র:বিবিসি নিউজ

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*