ঘরোয়া টোটকায় ভ্যানিশ ব্রণর দাগ

যাদের ত্বক তেলতেলে বা অয়েলি, ব্রণ যেন তাদের কাছে নিত্য একটা বিভীষিকার মতোই আসে। আবার প্রেগন্যান্সির সময় হরমোনের দাপাদাপিতে ব্রণ দেখা দিতে পারে। ব্রণ যখনই আসুক বা যেমন ভাবেই আসুক, বিচ্ছিরি কালো দাগ ছেড়ে যেতে ভোলে না কিন্তু। এই ঘরোয়া টোটকাগুলোতে শুধু যে ব্রণর দাগ ভ্যানিশ হয়ে যাবে তাই নয়, কমবে বারবার ব্রণ হওয়ার প্রবণতাও। ত্বকের সেবাম নিঃসরণ নিয়ন্ত্রণে থাকবে ফলে ত্বকের তেলতেলে ভাব কমবে। এই টোটকাগুলি নিয়মিত ব্যবহারে ত্বক ভিতর থেকে পরিষ্কার, দাগহীন ও উজ্জ্বল হবেই।

#1. টোটকা ১ (Ripe papaya)
.পাকা পেঁপের খোসা ও বীজ ফেলে দিয়ে টুকরো করে নিন।
.ব্লেন্ডারে মসৃণ পেস্ট তৈরি করুন।
.আইস ট্রে-তে মিশ্রণটি ঢেলে ৫-৬ ঘণ্টা রেফ্রিজারেটরে রাখুন।
.জমে গেলে সারা মুখে ভালো করে আলতো হাতে লাগান পেঁপের বরফ।
.১৫-২০ মিনিট রেখে ধুয়ে নিন।
.রোজ লাগাতে পারেন।

#2. টোটকা ২ (Egg white & Honey-Lemon)
.একটি পাত্রে আলাদা করে নিন এগ হোয়াইট।
.এক চামচ মধু ও কয়েক ফোঁটা পাতিলেবুর রস মিশিয়ে নিন।
.ভালো করে মিক্স করে নিন।
.পরিষ্কার মুখে প্যাকটি লাগিয়ে রাখুন ২০ মিনিট।
.ঠান্ডা জলে ভালো করে ধুয়ে নিন ও ময়েশ্চারাইজার লাগান।
.সপ্তাহে তিন দিন করুন।

#3. টোটকা ৩ (Potato)
.খোসা ছাড়ানো অর্ধেক আলু গ্রেট করে নিন।
.এরপর চিপে আলুর রসটা বের করুন।
.ওই রস ব্রণর দাগে বা পুরো মুখে লাগান তুলো দিয়ে।
.২০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন।
.রোজ লাগান অন্তত ১৫ দিন।

#4. টোটকা ৪ (Sandalwood & Basil leaves)
.পাত্রে বাড়িতে বাটা চন্দন বা চন্দন পাউডার নিন।
.৭-৮ টা তুলসীপাতা মিহি করে বেটে ওতে মেশান।
.গোলাপজল দিয়ে সবটা মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন।
.মুখে ১৫-২০ মিনিট লাগিয়ে ধুয়ে ফেলুন।
.একদিন ছাড়া ছাড়া লাগাতে পারেন।

#5. টোটকা ৫ (Besan & Yogurt)
.বেসনের সাথে টক দই ভালো করে ফেটিয়ে নিন।
.এক চিমটি হলুদ গুঁড়ো বা এক চা-চামচ কাঁচা হলুদের রস দিন।
.৫-৬ ফোঁটা পাতিলেবুর রস দিয়ে ভালো করে মিক্স করুন।
.পুরো মুখে লাগিয়ে রাখুন ২০ মিনিট।
.আলতো ভাবে স্ক্রাব করে জল দিয়ে ধুয়ে নিন।
.সপ্তাহে তিন দিন লাগাতে পারেন।

#6. টোটকা ৬ (Coconut Water)
.ডাবের জল বার করে নিয়ে কিছুক্ষণ ফ্রিজে রাখুন।
.ঠান্ডা হয়ে এলে ওই জলে তুলো ডুবিয়ে ভিজিয়ে নিন।
.দাগের জায়গায় ওই ডাবের জল লাগান।
.শুকিয়ে গেলে আবার তুলো ভিজিয়ে জলটি লাগান।
.রাতে শোওয়ার আগে আধ ঘণ্টা রেখে ধুয়ে ফেলুন।

সূত্র:ব্যাবি ডেস্টিনেশন

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*