পায়ের গোড়ালি ফাটা রোধে ঘরোয়া সমাধান!

বছর ঘুরে চলে এলো ফের এলো শীতকাল। ঠান্ডা ঠান্ডা উত্তুরে হাওয়া জানলা দিয়ে এবার ঘরে সিঁধলো বলে…
কিন্তু শীতকাল মানে কেবলই কম্বলের নীচে অলস সকাল, ভাপা পিঠে খাওয়া কিংবা ব্যাডমিন্টন খেলা নয়, হাওয়াবদলের সাথে সাথে এমরসুম সঙ্গে করে নিয়ে আসে স্বাস্থ্য বিষয়ক বেশি কিছু সমস্যাও।
শীতকালে সাধারণত পায়ের নীচের চামড়া শুষ্ক ও রুক্ষ হয়ে ফেটে যায়। এর শুরু হয় কিছু হালকা দাগ দিয়ে কিন্তু ধীরে ধীরে পরিণত হয় ব্যথাদায়ক শুষ্কতা এবং রুক্ষতায়। যার জেরে ফেটে যায় গোড়ালির ত্বক। ঠান্ডা পরিবেশ এবং স্বল্প আর্দ্রতার আরও ভয়ঙ্কর হতে পারে পায়ের গোড়ালি ফাটা। আগেভাগে সতর্ক না হলে রক্তপাতও হতে পারে!
বেবি ডেস্টিনেশন-এর বন্ধুরা যাতে এই সমস্যায় না ভোগেন, তা নিশ্চিত করতে আগাম পোস্ট করছি আমরা। জেনে নিন পায়ের গোড়ালি ফাটার সমস্যা প্রতিরোধে সহজ-ঘরোয়া-কার্যকরী টিপস:

#1. মধু (Honey)
ফাটা গোড়ালির প্রতিকারে মধুই হোক প্রথম পছন্দ। পায়ের রুক্ষ ত্বক পরিষ্কার করে, প্রাকৃতিক ভাবে নমনীয় করে তোলে মধু। কুসুম গরম জলে পা ধুয়ে স্ক্রাব হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন। মাস্ক হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন রাতেও।

#2. নারকেল তেল (Coconut oil)
শুষ্ক ত্বকের সমস্যা দূর করতে নারকেল তেলের জুড়ি মেলা ভার। গরম জলে পা চুবিয়ে রেখে নারকেল তেল মালিশ করুন। পা ফেটে রক্ত বেরনোর উপক্রম হলে নিমেষে আপনাকে নিস্তার দিতে পারে খাঁটি নারকেল তেল!

#3. অ্যালোভেরা জেল (Aloe vera)
শুষ্ক-মৃত কোষকে নতুন প্রাণ দেয় অ্যালোভেরা জেল। গোড়ালি ফাটলে তাই এর সাহায্য নিতেই পারেন। অ্যালোভেরা জেলে থাকা অ্যামিনো অ্যাসিড আপনার ফাটা-রুক্ষ গোড়ালিকে রাতারাতি করে তুলবে সুন্দর-নমনীয়।

#4. আরও কিছু ঘরোয়া টোটকা (Other natural remedies)
.জলে ভিনেগার মিলিয়ে পা ভেজান।
.নমনীয় রাখতে ব্যবহার করুন অলিভ অয়েল।
.ময়েশ্চারাইজারের কাজ করবে শিয়া বাটার।
.একই ভাবে কাজে দেবে চটকানো কলাও।
.ত্বকের আর্দ্রতা ধরে রাখবে বেকিং সোডা।
.ওটস-তেলের মিশ্রণ রক্ষা করবে ত্বকের স্বাস্থ্য।

সূত্র:ব্যাবি ডেস্টিনেশন

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*